‘নেমে দেখি চোর বসে পর্নো ছবি দেখছে’

  অনলাইন ডেস্ক

২০ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ০৯:৪৫ | অনলাইন সংস্করণ

‘চুরি বিদ্যা বড় বিদ্যা যদি না পড়ে ধরা’—কথাটির সঙ্গে আমরা সবাই পরিচিত। তবে চোর যদি ধরা পড়ে তাহলে গৃহস্থের কপাল ভালো বলতেই হয়। হ্যাঁ, যুক্তরাষ্ট্রের লস অ্যাঞ্জেলেস শহরে এক চোর ধরা পড়েছিল। তবে এক্ষেত্রে গৃহস্থের কপাল কতটুকু ভালো ছিল তা বলা মুশকিল। কারণ বাসায় ঢুকে চুরি করতে গিয়ে নয়, বরং পর্নো ছবি দেখতে গিয়ে পাকড়াও হয় সে।

ঘটনা কদিন আগের। গত মঙ্গলবার রাতে লস অ্যাঞ্জেলেসে লিসা ও স্টিভ মিরিজ্জির ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে ঢুকে পড়ে অ্যালান এস্তারাদা (২৮) নামের ওই চোর। প্রতিষ্ঠানের ওপরের তলাতেই সন্তানসহ বাস করেন  লিসা-স্টিভ দম্পতি।

সংবাদমাধ্যম ইন্ডিপেনডেন্টের খবরে বলা হয়, চুরির উদ্দেশ্যে ঢুকে প্রথমেই অ্যালান পুরো বাড়িট ঘুরে দেখে। এর পর একটু-আধটু নেশা পান করে হাত লাগায় চুরিতে। বাড়ি থেকে সব টাকা আর ক্রেডিট কার্ড চুরি করে ফোনে চার্জ দেয় অ্যালান। তারপর বসে কম্পিউটারে।  বাড়িতে লাগানো সিসিটিভি ক্যামেরায় ধরা পড়ে সব ঘটনা।

ভিডিও ফুটেজে দেখা যায়, কম্পিউটারের বসার পর পর্নোগ্রাফির একটি সিডি বের করে চালায় অ্যালান। তারপর পর্নো ছবিতে মজে যায় সে।

রাতে এক পর্যায়ে চা বানাতে নিচ তলায় নামেন লিসা। তখনই পর্নো ছবি দেখা অবস্থায় দেখতে পান চোর অ্যালানকে। এর পর যথারীতি চিৎকার। লিসার চিৎকার শুনে ছুটে আসেন তার স্বামী ও সন্তান। যদিও সে সময়ের মতো পালাতে সক্ষম হন অ্যালান।

তবে বেশিক্ষণ ফেরারী হয়ে থাকতে পারেনি ওই চোর। কিছুক্ষণের মধ্যে পুলিশের হাতে আটক হয় সে। আর স্টিভ দম্পতিও ফেরত পায় তাদের চুরি হয়ে যাওয়া মালামাল।

সেদিনের অভিজ্ঞতা সম্পর্কে লিসা বলেন, ‘চা বানাতে নিচে নেমে দেখি চোর কম্পিউটারে বসে পর্নো ছবি দেখছে। আমার কাছে এটা স্বপ্ন মনে হলো, যেন—এটা কি সত্যিই ঘটছে?’

 

  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ

ই-পেপার

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে