সিরিয়ার ঘৌটা মৃত্যুপুরী

সরকারের হামলায় একদিনে নিহত ১০০

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

২১ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ০০:০০ | আপডেট : ২১ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ০০:৫৪ | অনলাইন সংস্করণ

সিরিয়ার বিদ্রোহী নিয়ন্ত্রিত ঘৌটায় এলাকার দেশটির সরকারি বাহিনী ভয়াবহ হামলা চালিয়েছে। টানা বোমাবর্ষণে গোটা এলাকা ধ্বংসস্তূপে পরিণত হয়েছে। একদিনের হামলায় অন্তত ১০০ জন নিহত হয়েছেন। তাদের মধ্যে ২০ শিশুও রয়েছে। সিরিয়ার পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণকারী প্রতিষ্ঠান সিরিয়ান অবজারভেটরি ও হোয়াইট হেলমেট এ কথা জানিয়েছে। খবর বিবিসি।

২০১৩ সাল থেকে এলাকাটি বিদ্রোহীদের নিয়ন্ত্রণে ছিল। সম্প্রতি সেখানে সরকারি বাহিনী তাদের হামলার মাত্রা বাড়িয়েছে। কিন্তু গত সোমবার থেকে গতকাল সকাল পর্যন্ত নজিরবিহীন বোমাবর্ষণ করে সরকারি বাহিনী। ধারণা করা হচ্ছে, ২০১৩ সালের ওই এলাকায় এটিই সবচেয়ে বেশিসংখ্যক প্রাণঘাতী হামলা।

বিবিসি জানিয়েছে, ঘৌটার পূর্বাঞ্চল ছিল রাজধানী দামেস্কের নিকটবর্তী বিদ্রোহীদের সবচেয়ে বড় ঘাঁটি। এ কারণে সরকার এ অঞ্চলকে কব্জা করতে মরিয়া হয়ে বিমান হামলা চালিয়েছে। সিরিয়ান অবজারভেটরি ও হোয়াইট হেলমেট উভয় সংস্থা জানিয়েছে, দুমা, মিসরাবা ও আল নাসাবিয়ায় সরকারি বাহিনী বিমান হামলা চালিয়েছে। জাতিসংঘ বলছে, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যাচ্ছে।

সিরিয়ার সরকারি বাহিনী এমন একটি নাজুক জায়গায় তীব্র হামলা চালাল, যেখানে সম্প্রতি ৪০ হাজার লোক জরুরি সেবা গ্রহণ করেছেন। এ হামলার কারণে সেই করুণ অবস্থা আরও বহুগুণে বৃদ্ধি পেল।

বিবিসির মধ্যপ্রাচ্য সংবাদদাতা বলেন, গত রবিবার থেকেই ঘৌটায় হামলা শুরু করেছে সরকারি বাহিনী। এ হামলার লক্ষ্যই ছিল সাধারণ নাগরিকদের স্থাপনা। হামলা থেকে বাদ যায়নিÑ খাবার দোকান, জরুরি সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠান এমনকি শরণার্থী শিবিরও।

অন্যদিকে কুর্দি যোদ্ধাদের সংগঠন ওয়াইপিজি তুরস্কের বিরুদ্ধে সিরিয়ার সরকারের সঙ্গে কোনো সমঝোতা হওয়ার কথা অস্বীকার করেছে। তাদের ভাষ্য, তারা শুধু সিরিয়ার সরকারকে সীমান্ত রক্ষার আহ্বান জানিয়েছে।

  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ

ই-পেপার

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে