খোঁজখবর

  অনলাইন ডেস্ক

২১ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

একুশে কে-ক্র্যাফ্টের আয়োজন

অন্যান্য বছরের মতো কে-ক্র্যাফ্ট পূর্ণ মর্যাদায় এবং আন্তরিকতার সঙ্গে শ্রদ্ধাভরে একুশের পসরা সাজিয়েছে। যা এ প্রতিষ্ঠানের সব কয়টি বিক্রয়কেন্দ্রে ফেব্রুয়ারির পুরো মাস ধরে কে-ক্র্যাফ্টের আগ্রহী ও সহযোগী সম্মানিত ক্রেতাদের জন্য উপস্থিত থাকবে। এবারের মোটিফে অনুপ্রেরণার উৎস হিসেবে থাকছে বর্ণ ও শব্দমালার বিন্যাস। এবারের একুশের সংগ্রহ পাওয়া যাচ্ছে কে-ক্র্যাফ্টের সব শাখায় এবং িি.িশধুশৎধভঃ.পড়স-এ। ভাষা দিবসে আর্ট

ভাষা দিবস উপলক্ষে আর্ট আউটলেট ফ্যাশনসচেতনদের জন্য এক্সক্লুসিভ ডিজাইনের পোশাক এনেছে। ভাষা দিবসের পোশাকগুলোর অন্যতম বৈশিষ্ট্য মার্জিত কালার কম্বিনেশন। পোশাকের কাপড়ের ক্ষেত্রে প্রাধান্য দেওয়া হয়েছে সম্পূর্ণ সুতি কাপড়কে। নান্দনিক এসব পোশাক পাওয়া যাবে আর্ট আউটলেটে। এ ছাড়া নতুন ডিজাইন ও নতুন কালেকশনে রয়েছে মেয়েদের নিত্যনতুন ডিজাইনের পোশাক।

বিশ্বরঙের ২১-এর আয়োজন

সব উৎসব-পার্বণে ফ্যাশন হাউস বিশ্বরঙ-এর বিশেষ আয়োজন থাকে। বিশ্বরঙের শাড়ি, থ্রিপিস, ফতুয়া, পাঞ্জাবি এবং বিশেষ ডিজাইনের টি-শার্ট ছাড়াও স্কার্ট-টপস, ওড়না, মগ ইত্যাদিতে তুলে ধরা হয়েছে একুশের অনুষঙ্গ। যেমন শহীদ মিনার, বর্ণমালা, ধারাপাত সংখ্যা, একুশের গান ও কবিতা, আলপনা, রক্তলাল সূর্য, ফুল, পাখি প্রভৃতি। ছেলেমেয়েদের সাদাকালো কম্বিনেশনের কাপড় পরে খালি পায়ে শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণের প্রথা ছিল শুরু থেকেই। সেই ধারাবাহিকতায় আমাদের পোশাকে রঙ এবং পাশাপাশি আমাদের জাতীয় পতাকার সবুজ ও লাল রঙকে ব্যবহার করা হয়েছে। আর এসব সামগ্রী পাওয়া যাবে বিশ্বরঙের সব বিক্রয়কেন্দ্রে। আর আপনি কিনতে পারেন অনলাইনেও, িি.িনরংযড়িৎধহম.পড়স।

রঙ বাংলাদেশের একুশ সংগ্রহ

রঙ বাংলাদেশ এবার ভাষার মাসে নতুন সংগ্রহ সাজিয়েছে বর্ণমালাকে নকশা বিষয় করে। ভাষার মাসের বিশেষ রঙ হিসেবে সাদা আর কালো আমাদের ভাবনার জগৎকে অধিকার করে আছে। সেই সাদা আর কালোর সঙ্গে এ বছরের একুশে সংগ্রহে আরও যোগ করা হয়েছে ছাই রঙ বা অ্যাশ আর অফ হোয়াইট। এবারের সংগ্রহে থাকছে পুরুষ আর মেয়েদের ট্র্যাডিশনাল ও ওয়েস্টার্ন পোশাক। ব্লক প্রিন্ট, স্ক্রিন প্রিন্ট, মেশিন ও হ্যান্ড এমব্রয়ডারিতে করা হয়েছে জমিন অলঙ্করণ। এই মাধ্যমগুলোয় ভ্যালু এডিশনের পর প্রতিটি পোশাকের ডিজাইনকে মাত্রা দেওয়ার চেষ্টা করা হয়েছে নানা অনুষঙ্গের সন্নিবেশে। মেয়েদের কালেকশনে আছে শাড়ি, সালোয়ার-কামিজ, সিঙ্গেল কামিজ, টপস, আনস্টিচ, সিঙ্গেল ওড়না, ব্লাউজ।

বাংলাদেশে এলো বিশ্বখ্যাত স্মুদি ও জুস চেইন বুস্টজুস

বিশ্বখ্যাত অস্ট্রেলিয়ান স্মুদি ও ফ্র্যাঞ্চাইজ, বুস্ট জুস বার সম্প্রতি বাংলাদেশে কার্যক্রম শুরু করেছে। রাজধানীর বনানী ১১ নম্বর রোডে অবস্থিত অস্ট্রেলিয়ান ফ্র্যাঞ্চাইজটি এরই মধ্যে নগরের সব বয়সী মানুষের মনে সাড়া জাগাতে শুরু করেছে। ঢাকার ফুড অ্যান্ড বেভারেজ জগতে বুস্ট জুসই প্রথম আন্তর্জাতিক স্মুদি ব্র্যান্ড। বর্তমানে বুস্ট জুস ২৫০ থেকে ৫২৫ টাকার মধ্যে বিভিন্ন রকমের স্বাস্থ্যকর স্মুদি নিয়ে এসেছে। সম্পূর্ণ প্রাকৃতিক উপাদান, সতেজ ও প্রিজারভেটিভমুক্ত স্মুদিগুলো গ্রাহকের সামনেই তৈরি করা হবে। জুসের প্রচলিত ম্যাক্রো নিউট্রিয়েন্ট বা উপাদানের পাশাপাশি স্মুদিতে ব্যবহৃত ফলফলাদির ফাইবার বা আঁশজাতীয় উপাদান থাকার কারণে দৈনন্দিন প্রচলিত খাবার এবং ফাস্টফুডের পরিবর্তে এটিকে গ্রহণ করা যেতে পারে। বুস্ট জুস সম্প্রতি দারুণ কিছু স্মুদি নিয়ে এসেছে যেমনÑ ম্যাংগো ম্যাজিক, অল বেরি ব্যাং, ব্যানানা বাজ, স্ট্রবেরি স্কুইজ, কুকিজ অ্যান্ড ক্রিম, কফি বিন ড্রিম, কিং উইলিয়াম চকোলেট, জিম জাংকি ও প্রোটিন সুপ্রিম। এ ছাড়া তাদের ক্র্যাশার জুসগুলোর মধ্যে রয়েছে ম্যাংগো ট্যাংগো ক্র্যাশ, বেরি ক্র্যাশ, সিট্রাস ক্র্যাশ, ওয়াটারমেলন ক্র্যাশ ও পাইন অ্যাপল ক্র্যাশ। এ ছাড়া ‘লিন অ্যান্ড গ্রিন’ রেঞ্জের জুসগুলো আপনার শরীরের ক্ষতিকর টক্সিন দূর করতে সাহায্য করবে। সতেজ ফল ও সবজি দিয়ে এবং সঠিক নিয়ম মেনে কাউন্টারেই এ জুসগুলো তৈরি করা হয়।

যোগীর একুশ

ফ্যাশন হাউজ যোগী এনেছে একুশের পোশাক। এসব পোশাকের মধ্যে আছে ছেলেদের টি-শার্ট, পোলো শার্ট, পাঞ্জাবি, মেয়েদের সালোয়ার-কামিজ, টপস ও শিশুদের পোশাক। দেশি কাপড়ে তৈরি এসব পোশাকের রঙে ও নকশায় রয়েছে একুশের আমেজ। খুচরার পাশাপাশি পাইকারি কেনা যাবে। ঠিকানা : দোকান-৩৪, (নিচতলা) আজিজ সুপার মার্কেট, শাহবাগ, ঢাকা।

মেঘে একুশের পোশাক

ফ্যাশন হাউস মেঘ একুশে ফেব্রুয়ারি উপলক্ষে এনেছে ছেলেদের পাঞ্জাবি, টি-শার্ট, মেয়েদের কামিজ, শিশুদের ফতুয়া, ফ্রক ও টি-শার্ট। আরামদায়ক কাপড়ে সাদাকালো রঙে এসব পোশাকের নকশায় ফুটিয়ে তোলা হয়েছে একুশের আমেজ। মেঘের বিক্রয়কেন্দ্র আছেÑ শাহবাগের আজিজ সুপার মার্কেট, ধানম-ির সীমান্ত স্কয়ার, মেট্রো শপিংমল ও মিরপুর শপিং সেন্টার, ঢাকা।

  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ

ই-পেপার

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে